স্বাধীনতার গল্প

Pinterest LinkedIn Tumblr +

অগণিত মানুষের জীবনের বিনিময়ে দেড়শত বছরের ইংরেজ শাসন থেকে স্বাধীনতা পেলাম আমরা আমাদের দেশ।

স্বাধীনতা পেলো সেই ছেলেটি যে বহু চেষ্টা করেছিল সম্পর্কটা বাঁচাতে।কিন্তু পারেনি ,ভালোবাসার মানুষটির বিয়ে আজ ।আজ থেকে সেই মিথ্যে সম্পর্ক থেকে সে ও স্বাধীন।

আজ স্বাধীন হলো ২০৩ নম্বর ঘরের বুড়িটা , দীর্ঘ তিন বছর একটি বার তার সন্তান কে দেখতে পাওয়ার অব্যক্ত ইচ্ছের সমাপ্তি,সে ও স্বাধীন হলো নৃশংস পৃথিবীর মায়াজাল থেকে।

আজ সেই মেয়েটা স্বাধীনতা পেলো যে গত 2 বছর চার দেওয়ালের বাইরে পা ও দেয়নি।আজ থেকে তার নতুন জীবন ,নতুন শহর ,একা স্বাধীন পথ চলা শুরু।

দীর্ঘ ৩৫ বছরের কেরানি জীবনের অবসান , এর পর মুক্তি দশ টা পাঁচ টার বাঁধা রুটিন থেকে ,কিন্তু স্বাধীনতা যেন দীপক বাবুর দুনিয়া পাল্টে দিলো।

মিনির বাড়ির টিয়া টা, কত চেষ্টা করে উড়তে,আজ তাকে উড়তে দেওয়া হলো, কিন্তু তার ডানা যে উড়তে শেখেনি কখনো,স্বাধীনতা পেয়েও সে স্বাধীন হতে পারলো কৈ!

কি অসহ্য যন্ত্রনা সহ্য করে পাঁচ টা বছর দিনের পর দিন কেমো, রেডিয়েশন এর বিষাক্ত অভিশাপে তিলে তিলে মৃত্তুর দিকে এগিয়ে আসা লোকটি মারা গেলেন।সেও স্বাধীন আজ সাথে পরিবারের প্রিয় রাও।

স্বাধীনতা কি কখনো একটি দিনে আটকে থাকতে পারে!সে ছড়িয়ে রয়েছে চার পাশে ,শুধু খুঁজে নিতে হয় দু চোখ খুলে দু হাত বাড়িয়ে ।

স্বাধীনতার ৭১ বছর পূর্তির অনেক শুভেচ্ছা।

— সুপর্ণা ঘোষ (১৫ অগাস্ট ২০১৭)

Share.

About Author

“মেঘ বৃষ্টি” আসলে আমার ডাইরির পাতা। কিছুটা কল্পনা, কিছুটা ছেলেমানুষি, কিছুটা অভিমান আর অনেকটাই স্মৃতি। ছোটবেলা থেকেই লিখতে ভালো লাগতো, ভাবতে ভালো লাগতো। ডাইরির পাতায় কত আঁকিবুঁকি, কত কাটাকুটি, কত দুষ্টুমি আছে। যতটা সম্ভব “মেঘ বৃষ্টি” তে তুলে ধরলাম।

Leave A Reply