এবং মাধবীলতা ★ সুপর্ণা ঘোষ

মাধবীলতা, আমি তিন লক্ষ বার তোমার প্রেমে পড়েছি,
পড়েছি, উঠেছি, ধূলো ঝেড়ে ফের চলেছি।
এ যাত্রার ঠিক শেষ কোথায়, কোথায় বা হল শুরু
গড়ার আগেই পেলাম খবর, ভাঙার হয়েছে শুরু।
মাধবীলতা! তোমার ঠোঁটের পাশে এখনো ব্রণর দাগ
ঘুম না হলে চোখ জ্বালা করে! এখনো হয় সে রাগ?
দেখেছিলাম প্রথম তোমায় অজিৎ দের বাড়ি
ভেজা চুলে স্নিগ্ধ তুমি টিয়ে রঙের শাড়ি।
বয়স বুঝি অল্প নাকি এড়িয়ে যাওয়ার গল্প
তবু ভীষণ জ্বরে রাত দুপুরের বেঘোর অল্প স্বল্প
মাধবীলতা! তোমায় নিয়ে পালিয়ে যেতাম দূরে
গুছিয়ে নিতাম দুহাত দিয়ে ছোট্ট মাটির ঘরে।
পরিয়ে দিতাম লাল পলাশের মালা খোঁপার ভাঁজে
ভাবলে কেমন অবাক লাগে চিন্তা মাঝেসাঝে।
যাইহোক, গেছে সেসব দিন যেমন গেছে বছর
কেটেছে সময়, বেজেছে সুর, কেঁদেছে তো অন্তর।
মাধবীলতা , আজ কাল আমি ঘুমের দেশেই থাকি
দিনের শেষে এসে দেখি গোটা জীবন ফাঁকি।।

★★ Please make a comment using Facebook profile ★★

About Author

“মেঘ বৃষ্টি” আসলে আমার ডাইরির পাতা। কিছুটা কল্পনা, কিছুটা ছেলেমানুষি, কিছুটা অভিমান আর অনেকটাই স্মৃতি। ছোটবেলা থেকেই লিখতে ভালো লাগতো, ভাবতে ভালো লাগতো। ডাইরির পাতায় কত আঁকিবুঁকি, কত কাটাকুটি, কত দুষ্টুমি আছে। যতটা সম্ভব “মেঘ বৃষ্টি” তে তুলে ধরলাম।

Leave A Reply